তাওয়্যারুক : বাম পাকে ডান পায়ের নিচে দিয়ে বাম নিতম্বের উপর বসাকে “তাওয়্যারুক” করা বলা হয়।

A

ax

LOG_ON:_tawaruk

তাশাহুদে বসে ইফতেরাশ ও ওয়্যাররুক করা নারী ও পুরুষ সকলের জন্য সুন্নত।

তাওয়্যারুক কি?
উত্তরঃ ৩য় বা ৪র্থ রাকাতের দ্বিতীয় বৈঠক করার সময় বাম পাকে ডান পায়ের নিচে দিয়ে বাম নিতম্বের উপর বসাকে “তাওয়্যারুক” করা বলা হয়।

প্রশ্নঃ তাওয়্যারুক করার হুকুম কি?
উত্তরঃ রাসুলুল্লাহ (সাঃ) শেষ বৈঠকে তাওয়্যারুক করতেন, সুতরাং নারী ও পুরুষ উভয়ের জন্য সুন্নত হচ্ছে ৩য় অথবা ৪র্থ রাকাতের বৈঠকে তাওয়্যারুক করা। হাদীসে দলীল –
মুহাম্মদ ইবন আমর ইবন আতা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি নবী (সাঃ) এর একদল সাহাবীর সঙ্গে বসা ছিলেন। তিনি বলেন, আমরা নবী (সাঃ) এর সালাত সম্পর্কে আলোচনা করছিলাম। তখন আবূ হুমাইদ সায়ীদী (রা.) বলেন, আমিই তোমাদের মধ্যে রাসূলুল্লাহ্ (সাঃ) এর সালাত সম্পর্কে বেশী স্মরণ রেখেছি। আমি তাঁকে দেখেছি (সালাত শুরু করার সময়) তিনি তাকবীর বলে দু’হাত কাঁধ বরাবর উঠাতেন। আর যখন রুকূ’ করতেন তখন দু’ হাত দিয়ে হাঁটু শক্ত করে ধরতেন এবং পিঠ সমান করে রাখতেন। তারপর রুকূ’ থেকে মাথা উঠিয়ে সোজা হয়ে দাঁড়াতেন যাতে মেরুদন্ডের হাড়গুলো স্ব-স্ব স্থানে ফিরে আসত। এরপর যখন সিজদা করতেন তখন দু’ হাত সম্পূর্ণভাবে মাটির উপর বিছিয়ে দিতেন না, আবার গুটিয়েও রাখতেন না। এবং তাঁর উভয় পায়ের আঙ্গুলীর মাথা কেবলামুখী করে দিতেন এবং যখন শেষ রাকাআতে বসতেন তখন বাঁ পা এগিয়ে দিয়ে ডান পা খাড়া করে নিতম্বের উপর বসতেন।
বুখারী, ২য় খন্ড হাদীস নং-৭৯১।
সুতরাং আমাদের উচিত তাশাহুদের বৈঠকে এই সুন্নতের উপর আমল করার চেষ্টা করা।

প্রশ্নঃ তাওয়্যারুক কখন করতে হয়?
উত্তরঃ তাওয়্যারুক শুধুমাত্র ৩য় অথবা ৪র্থ রাকাতের দ্বিতীয় বা শেষ বৈঠকে করতে হয়। ২য় রাকাতের বৈঠকে সালাম ফেরান বা না ফেরান – তাওয়্যারুক করতে হবেনা।

ফতওয়া আরকানুল ইসলাম, শায়খ মুহাম্মাদ বিন সালিহ উসাইমিন।

***ইফতেরাশ হচ্ছে, ডান পা খাড়া রেখে বাম পায়ের উপর বসা।
উপরে উল্লেখিত স্থানগুলো ছাড়া নামাজের বাকি জায়গাগুলোতে ইফতেরাশ করতে হবে।***

 

Nayon Ahmed and 234 others like this.
7 comments
Comments
Shakee Raja Chowdhury
Rabbany Rana

Rabbany Rana Ma sha allah verry nice post

 

Md Abbas

Md Abbas যাজাকাল্লাহু খায়ের

Abdul Kaium
Abdul Kaium কুতায়বা ইবনু সাঈদ ……….. মূসা’দ্দাদ ইবনু আমার আল-আমিরী হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি সাহাবায়ে কিরামের মজলিসে উপস্হিত থাকাকালে সেখানে রাসূলুল্লহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নামায সম্পর্কে আলোচনা হয়। তখন আবূ হুমায়েদ (রাঃ) বলেন অতঃপর রাবী পূর্বোক্ত হাদীছটির কিছু অংশ বর্ণনা করেন। তিনি বলেন, যখন তিনি রুকূ করতেন তখন তাঁর হাতের তালু দ্বারা হাঁটু মজবুতভাবে ধরতেন এবং হাতের আংগুলগুলি পরস্পর বিচ্ছিন্ন রাখতেন এবং এ সময় তিনি স্বীয় মাথা পিঠের সমান্তরালে রাখতেন। রাবী বলেন, অতঃপর যখন তিনি দুই রাকাত নামায আদায়ের পর বসতেন, তখন বাম পায়ের উপর বসতেন এবং ডান পায়ের পাতা দাঁড় করিয়ে রাখতেন। অতঃপর তিনি যখন চতুর্থ রাকাতের পর বসতেন, তখন তিনি নিজের উভয় পা ডান দিকে বের করে দিতেন এবং বাম পাশের পাছার উপর ভর দিয়ে বসতেন।
সূনান আবু দাউদ (ইফা:-৭৩১)
হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)

Abdul Kaium
Abdul Kaium আহমদ ইবনু হাম্বল ……….. মুহাম্মাদ ইবনু আমর হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি আবূ হুমায়েদ আস-সাইদী (রাঃ) -কে দশজন সাহাবীর উপস্হিতিতে যাদের মধ্যে আবূ কাতাদা (রাঃ)- ও ছিলেন- বলতে শুনেছিঃ আমি রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নামায সম্পর্কে আপনাদের চেয়ে সমধিক অবগত আছি। তাঁরা বলেন, তা কিরূপে? আল্লাহর শপথ! আপনি তাঁর – অনুসরণের ও সাহচর্যের দিক দিয়ে আমাদের চাইতে অধিক অগ্রগামী নন। তিনি বলেন, হাঁ। অতঃপর তারা বলেন, এখন আপনি আপনার বক্তব্য পেশ করুন। তিনি বলেন, যখন রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নামাযে দাঁড়াতেন তখন তিনি, তাঁর হস্তদ্বয় কাঁধ পর্যন্ত উঠিয়ে আল্লাহু আকবার বলে পূর্ণরূপে সোজা হয়ে দাঁড়াতেন। তিনি কিরাআত পাঠের পর তাকবীর বলে রুকূতে যাওয়ার সময় আল্লাহু আক্বার বলে নিজের উভয় হাত কাঁধ পর্যন্ত উঠাতেন। রুকূতে গিয়ে তিনি দুই হাতের তালু দ্বারা হাঁটুদ্বয় মজবুতভাবে ধরতেন। অতঃপর তিনি এমনভাবে রুকু করতেন যে, তাঁর মাথা পিঠের সাথে সমান্তরাল থাকত। অতঃপর তিনি মাথা উঠিয়ে “সামিআল্লাহু লিমান হামিদাহ” বলে স্বীয় উভয় হাত কাঁধ পর্যন্ত উঠিয়ে সোজা হয়ে দাঁড়াতেন। পুনরায় আল্লাহু আক্বার বলে তিনি সিজদায় গিয়ে উভয় বাহু স্বীয় পাজরের পাশ হতে দূরে সরিয়ে রাখতেন। অতঃপর সিজদা হতে মাথা উঠিয়ে বাম পা বিছিয়ে দিয়ে তার উপর বসতেন এবং সিজদার সময় পায়ের আংগুলগুলি নরম করে কিবলামুখী করে রাখতেন। তিনি আল্লাহু আক্বার বলে (দ্বিতীয়) সিজদা হতে উঠে বাম পা বিছিয়ে দিয়ে তার উপর সোজা হয়ে বসতেন। অতঃপর তিনি সর্বশেষ রাকাতে স্বীয় বাম পা ডান দিকে বের করে দিয়ে বাম পাশের পাছার উপর ভর করে বসতেন। তখন তারা সকলে বলেন, হাঁ আপনি ঠিক বলেছেন। রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এই রূপেই নামায আদায় করতেন।
সূনান আবু দাউদ (ইফা:-৭৩০)
হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)

Humayra Islam Rumali

Humayra Islam Rumali Jazakallahu khairan

 

Md Khorshed Alam Khaleque
Md Khorshed Alam Khaleque 2য় রাকাত বিশিষ্ট সলাতে করতে হবে কি না।
জানাবেন।
জাজাকাল্লাহ খাইরন

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s